বাজারে মিলবে ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ ব্রয়লার

প্রকাশিত : মে ১৫, ২০২২ , ৫:৩৬ অপরাহ্ণ

ব্রয়লার মুরগীর মাংসে-লেয়ার মুরগীর ডিমে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধকরণে সাফল্য পেয়েছে বাকৃবি’র সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘আপিজ সেইফ ফুড এগ্রো লিমিটেড’

মোঃ আজিজুর রহমান ভূঁঞা বাবুল, ময়মনসিংহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ওমেগা-৩ চর্বি (ফ্যাটি এসিড) মানবদেহের হৃদযন্ত্রের জন্য জরুরী একটি উপাদান। প্রকৃতিতে সাধারণত সামুদ্রিক মাছে এই চর্বি অধিক মাত্রায় পাওয়া যায়। তবে এবার ব্রয়লার মুরগির মাংস ও লেয়ার মুরগির ডিমে ওমেগা-৩ চর্বি সমৃদ্ধকরণে সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে গঠিত সংগঠন (ফার্ম)‘আপিজ সেইফ ফুড এগ্রো লিমিটেড’।
বিগত দুই বছর ধরে ব্রয়লার মুরগির মাংস ও লেয়ার মুরগির ডিমের ওপর গবেষণা করে বাকৃবি’র সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন এই সাফল্য পান। ওমেগা-৩ চর্বি সমৃদ্ধ ‘সেইফ ওমেগা-৩ ব্রয়লার’ ও ‘সেইফ ওমেগা-৩ এগ’ নামে দু’টি পণ্য শিগগিরই বাজারজাত করবে বেসরকারি এই প্রতিষ্ঠানটি। শনিবার (১৪ মে) দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসব তথ্য জানান আপিজ সেইফ ফুড এগ্রো লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বাকৃবি সাবেক শিক্ষার্থী কৃষিবিদ জিকরুল হাকিম। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ আহসান হাবীব। সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, গবেষণায় লেয়ার মুরগির ডিমের ক্ষেত্রে প্রতি ১০০ গ্রামে ৩৭৪ দশমিক ২৯ মিলিগ্রাম ও ব্রয়লার মুরগির মাংসের ক্ষেত্রে প্রতি ১০০ গ্রামে ১৮৭ দশমিক ১৫ মিলিগ্রাম ওমেগা-৩ চর্বি পাওয়া যায়। যা ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় মাত্রা থেকে বেশি। গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফলটি বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর) দ্বারা পরীক্ষিত হয়েছে। আপিজ সেইফ ফুড এগ্রো লিমিটেডের চেয়ারম্যান কৃষিবিদ মোহাম্মদ আহসান হাবিব ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ জিকরুল হাকিমের সমন্বয়ে গঠিত ‘রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট টিম’ এই সেইফ ব্রয়লার ও সেইফ এগকে ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ করার গবেষণাটি শুরু থেকে সমাপ্ত করার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানান, প্রাণিজ উৎসের মধ্যে সাধারণত সামুদ্রিক মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায়। কিন্তু দেশের সব জায়গায় সামুদ্রিক মাছের প্রাপ্যতা কম এবং তা অনেক ব্যয়বহুল। অন্য দিকে ব্রয়লার মুরগীর মাংসে এবং লেয়ার মুরগী ডিমে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড খুবই কম থাকে বা থাকে না বললেই চলে। তাই এ প্রয়োজনীয় উপাদানটি সবার প্রাপ্যতার কথা বিবেচনা করে আমরা এ গবেষণা কার্যক্রমটি হাতে নেই। গবেষণা প্রকল্পটি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে শুরু হয়ে ২০২২ সালের এপ্রিল মাসে শেষ হয়। প্রকল্পটিতে মূলত মুরগীর খাদ্যাভ্যাস ও খাদ্য গ্রহণে পরিবর্তন আনা হয়। খাদ্য হিসেবে মুরগীকে প্রতিদিনের খাদ্যের সাথে কড লিভার অয়েল, ফ্লাক্স সিড অয়েল, ফিস অয়েল ইত্যাদি ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ উপাদান সরবরাহ করা হয়। দেশে আমরাই প্রথম ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ মুরগীর মাংস উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছি। পণ্যগুলোর দাম সম্পর্কে কৃষিবিদ মোঃ আহসান হাবীব জানান, সাধারণ ব্রয়লার মুরগির মাংসের দাম কেজি প্রতি ২৮০ থেকে ২৯০ টাকা (ড্রেসিং অবস্থায়) হলেও ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ ব্রয়লার মুরগির মাংসের দাম কেজি প্রতি ৫৯০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। অপরদিকে সাধারণ লেয়ার মুরগির ডিমের দাম প্রতি ডজন ১২০ টাকা হলেও ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ ডিমের দাম প্রতি ডজন ২২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকেই ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট অঞ্চলের বিভিন্ন সুপার শপে পণ্যগুলো কিনতে পাওয়া যাবে। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে বাকৃবির চারজন তরুণ শিক্ষার্থীর উদ্যোগে ‘আপিজ সেইফ ফুড এগ্রো লিমিটেড’ যাত্রা শুরু পর থেকে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাবারের যোগান দেওয়া ও দেশের মেধাবী ও পরিশ্রমী জনশক্তিকে কাজে লাগিয়ে কৃষিক্ষেত্রে সমৃদ্ধি আনার অন্যতম লক্ষ্য নিয়ে এই সংগঠনটির বর্তমানে ঢাকাসহ চারটি বিভাগীয় শহরে প্রায় ৪ হাজারের অধিক পরিবারে নিরাপদ প্রাণিজ আমিষের যোগান দিচ্ছে এই প্রতিষ্ঠানটি।