ছিপ দিয়ে মাছ ধরা যাবে ২৪ ঘন্টা: গুনতে হবে ১৫ হাজার টাকা

প্রকাশিত : আগস্ট ২৫, ২০২২ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

মোঃ আশরাফুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: মুঘল সম্রাট শাহজাহানের পুত্র সুলতান শাহ সুজা তার মুর্শিদ সৈয়দ শাহ্ নেয়ামতউল্লাহর উদ্দেশ্যে শীতকালীন বাসের জন্য তাপনিয়ন্ত্রণ ইমারত হিসেবে নির্মাণ করেছিলেন ঐতিহাসিক “তোহাখানা”। শাহ্ তাপ-নিয়ন্ত্রণ বাংলার সুবাদার থাকাকালে ১৬৩৯-১৬৫৮ খ্রিস্টাব্দ মতান্তরে ১৬৩৯-১৬৬০ খ্রিস্টাব্দে হযরত শাহ সৈয়দ নেয়ামতউল্লাহর প্রতি ভক্তি নিদর্শনের উদ্দেশ্যেই এই তোহাখানা নির্মাণ করেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামে তোহাখানার পাশেই রয়েছে শাহ নেয়ামতউল্লাহর মাজার। মাজার ও তোহাখানার সামনেই মোঘল আমলে তৈরি করা হয়েছিল বিশাল পুকুর। ঐতিহাসিক এই পুকুরে ছিপ দিয়ে মাছ ধরার আয়োজন করেছে শিবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন। তোহাখানা মসজিদ ও শাহ্ নেয়ামতউল্লাহ (রহঃ) এঁর মাজার সংলগ্ন পুকুরে ছিপ দিয়ে মাছ ধরা যাবে আগামী ০৬ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে ০৭ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা পর্যন্ত। টিকিট কেটে পুকুরে মাছ শিকারে গুনতে হবে ১৫ হাজার টাকা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. জুবায়ের হোসেন। পুকুরে ছিপের দিয়ে মাছ শিকারের জন্য আগামী বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) থেকে সোমবার (০৫ সেপ্টেম্বর) সোনালী ব্যাংক সোনামসজিদ শাখার হিসাব নম্বর- ৪৭০২৭৩৪০৭৬৮৭৫ এর অনুকূলে ১৫ হাজার টাকা জমা দিতে হবে। পরে টাকা জমার চালানের কপি শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রদান করে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। একজন ব্যক্তি একটি টিকিটের বিনিময়ে পুকুরে ০৪টি ছিপ ফেলতে পারবেন। শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. জুবায়ের হোসেন মুঠোফোনে বলেন, ছিপ দিয়ে মাছ ধরা অনেকের কাছে ভালো একটি বিনোদন ও শখের বিষয়। তাই এই বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে বিশাল এই পুকুরটি উপজেলা প্রশাসন ইজারা দেয় না। প্রতিবছর এমন একটি উৎসবের আয়োজন করা হয়। আয়োজনে একটি বিশাল উৎসবের আবহ তৈরি হয়। তিনি আরও বলেন, পুকুরটিতে বিশাল বিশাল রুই, কাতলা, মৃগেলসহ বিভিন্ন জাতের মাছ রয়েছে। ছিপ দিয়ে মাছ ধরার সাথে সাথে ঐতিহাসিক তোহাখানার ইতিহাস সম্পর্কেও জানতে পারবে দর্শনার্থীরা। দূর-দূরান্ত থেকে আসা মাছ শিকারি ও দর্শনার্থীদের জন্য পুকুরের কয়েকশ মিটার দূরে ঐতিহাসিক সোনামসজিদের পাশে পর্যটন মোটেলে নিজ খরচে থাকার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।