ঝিনাইদহে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ৮, ২০২২ , ২:২০ পূর্বাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: সরকার দলীয় সহযোগী সংগঠনের নেতা ধোয়া তুলে কোটচাঁদপুর উপজেলার নওদা গ্রামের অসহায় এক দিন মজুর কৃষকের জমি থেকে গাছ কেটে নেয়াসহ জমি হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ এনে এক ভুক্তভোগী পরিবার সংবাদ সম্মেলন করেছে। কোটচাঁদপুর পাঠাগার অডিটোরিয়ামে বুধবার দুপুরে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনটি করেন উপজেলার নওদা গ্রামের মৃত তোফাজ্জেল দফাদারের ছেলে আইন উদ্দীন দফাদার । সংবাদ সম্মেলনে আইন উদ্দীনের স্ত্রী মুসলিমা খাতুন, ভাই মঈন উদ্দীন, আলতাফ হোসেন ও তার স্ত্রী লিপি খাতুনসহ কোটচাঁদপুরে কর্মরত বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকের সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন। লিখিত বক্তব্যে আইন উদ্দীন দফাদার বলেন,বিগত ১৯৯৩ সালে আমি প্রতিবেশী আবদুর রশিদের কাছ থেকে ৫ শতক জমি ক্রয় করি। যার মৌজা-কাশিপুর, খতিয়ান নম্বর-২৭১, সাবেক দাগ নম্বর-৭৭৬৪, বর্তমান আর.এস দাগ নম্বর-১০০৯, রেজিস্ট্রি দলিল নং- ১০২০, তারিখ-২৮-০৪-১৯৯৩ সাল।তিনি বলেন, বর্তমানে ওই জমির উপর আমার বসত ভিটা রয়েছে। এরমধ্যে ২০১০ সালের দিকে তৈয়জ উদ্দিনের ছেলে কোরবান আলী ওই ক্রয়-কৃত জমি তাদের বলে দাবী করে এবং ঘরবাড়ী ভেঙ্গে অন্যত্র চলে যেতে বলে। সে সময় (আরএস) মাঠ পর্চায় তার পিতার নাম রয়েছে বলে দাবী করে। পরে খোঁজ খবর নিয়ে আমি জানতে পারি জমির অন্যান্য দলিলাদি না থাকলেও জালিয়াতির মাধ্যমে উল্লেখিত দাগের ৫শতক ও পাশের সড়ক ও জনপদের ১২শতক জমি রেকর্ড করে নিয়েছে তারা। শেষ পর্যন্ত উপায় না পেয়ে ২৪-০২-২০১০ সালে রেকর্ড সংশোধনের জন্য ঝিনাইদহ বিজ্ঞ জজ আদালতে ৮ জনকে বিবাদী করে মামলা দায়ের করি। মামলাটি এখনো চলমান রয়েছে। এদিকে আদালতে মামলা থাকা সত্ত্বেও তৈয়জ উদ্দিনের ছেলে কোরবান আলী যুবলীগের নেতা পরিচয়ে দিতে ভয় ভীতি প্রদর্শন ছাড়াও আমাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করেছে। এখানেই সে ক্ষান্ত নন,তারা হত্যার হুমকি দেয়াসহ বিভিন্ন ভাবে ওই জমি দখল নেয়ার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। ইতি মধ্যেই ওই জমি থেকে বল প্রয়োগ করে কিছু দামি গাছ কেটে নিয়ে গেছে যুবলীগ নামধারী ওই কোরবান আলী। আমি খেটে খাওয়া দিন মজুর কৃষক। অথচ আমরা বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা বানোয়াট তথ্য দিয়ে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করেছে। ওই সংবাদের আমি প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি সাংবাদিক ভাইদের কাছে তদন্ত পূর্বক প্রকৃত সত্য ঘটনা প্রকাশের দাবী জানাচ্ছি। কোরবান আলী দলের পরিচয় দিয়ে একের পর এক আমার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে মিথ্যা অভিযোগ করছেন। যে কারণে কোটচাঁদপুর থানা পুলিশের ঝামেলায় আমি কাজে যেতে পারছিনা। ফলে পরিবার নিয়ে বর্তমানে আমি মানবেতর জীবনযাপন করছি। বিষয়টি সমাধানে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আকুল আবেদন জানিয়েছেন ভুক্তভোগী আইন উদ্দীন।