গৌরীপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নির্মাণ শ্রমিক নিহত

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২ , ৬:৫৪ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহ ব্যুরো, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চুরি ঘটনার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ফরিদুল ইসলাম (৩১) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহত নির্মাণ শ্রমিক গৌরীপুর ছিলিমপুর গ্রামের মোকশেদ আলীর ছেলে।
বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এ সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০-১২ জন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়। এর আগে বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গৌরীপুর উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের ছিলিমপুর বাজারে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) রাতে অচিন্তপুর ইউনিয়নের ছিলিমপুর গ্রামের পুরাতন মোড়ে একটি বেকারির পরিবেশককে মারধর করে মালামাল ছিনতাই করেন কয়েকজন যুবক। অভিযুক্ত যুবকেরা ছিলিমপুর ও খয়রা দৌলতপুর গ্রামের বাসিন্দা। এদিকে ছিনতাইয়ের ঘটনার পরপরই ওই রাতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য স্থানীয়ভাবে সালিস হয়। ওই ছিনতাইয়ের ঘটনার জের ধরে বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ছিলিমপুর বাজারে দুই পক্ষের বাগ-বিতন্ডা থেকে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এতে ছিলিমপুর গ্রামের মোকশেদ আলীর ছেলে ফরিদুল ইসলাম, আবুল হাসিমের ছেলে সোহাগ ও সুমন, শাহজাহানের ছেলে শাহীন, আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে কাউসার, মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে আবুল হাশেম, মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে বজলুর রহমান, মৃত ইছব আলীর ছেলে ছালাম, মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে উসমান গণিসহ দুই পক্ষের ১০-১২ জন আহত হন। আহতদের প্রথমে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফরিদুল, সোহাগ ও শাহীনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে বুধবার রাতে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফরিদুল ইসলামের মৃত্যু হয়। এদিকে ফরিদুলের মৃত্যুর খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ লোকজন ছিলিমপুর গ্রামের কমপক্ষে ১৪-১৫টি ঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী বলেন, ‘দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনার তদন্ত ও জড়িতদের ধরার চেষ্টা চলছে। এদিকে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।’