২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হতে শিপিং সেক্টর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২২, ২০২৩ , ৭:১৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। এরই অংশীদার হিসেবে শিপিং সেক্টরও জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী রবিবার চট্টগ্রামে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউিট (এনএমআই) চট্টগ্রামের ২৪তম এবং এনএমআই, মাদারীপুর এর ১৩তম ব্যাচের প্রশিক্ষণার্থী রেটিংসদের পাসিং আউট অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে অন‍্যান‍্যের মধ‍্যে বক্তব‍্য রাখেন নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর মোঃ নিজামুল হক, ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউিটের অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন আতাউর রহমান প্রমুখ। মন্ত্রী বলেন, ন‍্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউিট, চট্টগ্রামকে মেরিটাইম কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র হিসাবে পরিণত করার সরকারি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সরকার ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে ‘শেখ রাসেল সিমুলেটর ভবন’ নির্মাণ করেছে। যার মধ্যে ফুল মিশন ব্রিজ সিমুলেটর, ফুল মিশন ইঞ্জিন সিমুলেটর এবং হাই ভোল্টেজ সিমুলেটরসহ অন্যান্য আধুনিক প্রশিক্ষণ যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে। এর ফলে বাংলাদেশের শিপিং সেক্টরের সংশ্লিষ্ট অফিসার ও রেটিংদের উন্নতমানের প্রশিক্ষণ প্রদানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। প্রশিক্ষণের জন্য বাংলাদেশি অফিসার ও রেটিংদেরকে আর বিদেশে যাওয়ার প্রয়োজন হবেনা। ফলে দেশের আর্থিক সাশ্রয় হবে, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং কর্মসংস্থানও বৃদ্ধি পাবে। খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউিট, চট্টগ্রামের নিয়ন্ত্রণে মাদারীপুর শাখার স্থাপনাদির নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। শীঘ্রই এই ক্যাম্পাসে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হবে। সেখানে প্রতি ব্যাচে ৩০০ জন করে ২টি ব্যাচে প্রতি বছর ৬০০ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা সম্ভব হবে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় উত্তরবঙ্গের কুড়িগ্রামে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউিট, কুড়িগ্রাম শাখা স্থাপনের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে দুজন রেটিংসকে গোল্ড মেডেল ও সিলভার মেডেল পদক প্রদান করা হয়। উক্ত প্রশিক্ষণ কোর্সে ২৯৭জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করে। এর মধ‍্যে ৬৮ জন মাদারীপুর এনএমআই’র। প্রতিমন্ত্রী পাসিং আউট রেটিংসদের মার্চ পাস্ট পরিদর্শন করেন। তিনি শ্রেষ্ঠ প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। প্রতিমন্ত্রী পরে ইনস্টিটিউিটের নবনির্মিত মসজিদ ও শেখ রাসেল সিমুলেটর ভবন উদ্বোধন করেন।