আমরা বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমিটির নেতা বদিউজ্জামানের মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত দাবি

প্রকাশিত : অক্টোবর ৮, ২০২২ , ১০:০৩ অপরাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: “আমরা বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান” জেলা কমিটির উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও জেলা কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মধুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক বদিউজ্জামান এপো’র রহস্যজনক মৃত্যুর তদন্ত ও ন্যায় বিচার দাবি করেছেন “আমরা বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান” জেলা কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ। জেলা কমিটির সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ সেলিম রেজা শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি করেন। তারা বলেন, দ্রুত এই মৃত্যুর ঘটনা জনসমক্ষে উন্মোচন করতে হবে। বদিউজ্জামানের ময়না তদন্তের রিপোর্ট আদালতে পেশ করা হোক যাতে মানুষের মধ্যে যে সন্দেহ জেগে উঠেছে তা দূর হয়।
উল্লেখ্য গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে ঝিনাইদহে সদর উপজেলার মধুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদিউজ্জামান এ্যাপো (৫৫) রহস্যজনক মৃত্যু ঘটে। প্রথমে স্বর্পদংশনে মৃত্যু বলে প্রচারের পর লাশ দাফন এর জন্য জানাযার পর দাফনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল। এ সময় হঠাৎ দেখা গেলো মৃত ব্যক্তির কান ও মাথার পেছন দিয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। খবর পেয়ে পুলিশ বদিউজ্জামান এ্যাপোর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়। ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও পরবর্তী ঘটনাটি ঘটে রোববার দুপুরে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি ইউনিয়নের এস্তেফাপুর গ্রামে। মৃত মধুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদিউজ্জামান এ্যাপো পোড়াহাটী ইউনিয়নের এস্তেফাপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিরুল ইসলাম লতার ছেলে। এদিকে হাসপাতালে একটি সুক্র জানায়, বদিউজ্জামান এ্যাপোর শরীরে এ্যালকোহল ও বিষ দুটোই পাওয়া গেছে। লিভারে পাওয়া এই বিষ পুশ করা না সাপের বিষ তা পরীক্ষার জন্য রাজশাহী ও খুলনা পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসকরা বলছেন, নিশ্চত না হলেও এই বিষ হয়তো সাপের হতে পারে কারণ সাপে কাটলে রক্ত পানি হয়ে যায়। বদিউজ্জামানের কান দিয়ে যে রক্ত বের হয়েছে তা ‘রক্ত রস’ বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই চিকিৎসক দাবী করেন।