ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু পরিষদের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২১, ২০২৩ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রাণশক্তি ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু পরিষদের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল ঝিনাইদহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঝিনাইদহ জেলা শাখার এ স্মরণ-সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।স্মরণ-সভা, মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, ঝিনাইদহ পৌরসভার সাবেক মেয়র জননেতা আলহাজ্ব সাইদুল করিম মিন্টু। ঝিনাইদহ জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ডক্টর এ.এইচ.এম আকতারুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান আলোচক ছিলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মানিত সদস্য অধ্যাপক আবেদ আলী। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বিশ্বাস, জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাফিজুর রহমান, ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক ও সরকারি কৌসুলি জি.পি অ্যাড. বিকাশ কুমার ঘোষ, জেলা যুবলীগের আহবায়ক আশফাক মাহামুদ জন, ঝিনাইদহ পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী কামাল আহমেদ বাবু ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল ইমরান প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাহিত্য সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঝিনাইদহ জেলা শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মিন্টু লাল দত্ত। মিলাদ ও দোয়া পরিচালনা করেন জামে মসজিদের ইমাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক সহযোদ্ধা এবং তাঁর (বঙ্গবন্ধু) আদর্শ ও সততার ধারক ও বাহক, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেক। ডা. এস এ মালেক ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রাক্তন রাজনৈতিক উপদেষ্টা, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের ১ নম্বর সদস্য ছিলেন। তাঁর মৃত্যু বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে তো বটেই, দেশের বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রসার ও বিস্তারের অঙ্গনে এক অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।
সর্বজন শ্রদ্ধেয় এ মহান ব্যক্তিত্বের প্রয়াণে বঙ্গবন্ধু পরিষদ একজন অভিভাবককে হারালো, যা কখনোই পূরণ হবে না। বঙ্গবন্ধু পরিষদ-ঝিনাইদহ জেলার অগ্রযাত্রা ও কার্যক্রমে মহান ব্যক্তিত্ব ডা. এস এ মালেকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ অবদানকে আজকের এই স্মরণ-সভায় শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছে। ডা. এস এ মালেক যে আদর্শ, স্বপ্ন ও প্রত্যাশা রেখে গেছেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঝিনাইদহ জেলা শাখা তা ধারণ করেই সেই আদর্শ ও স্বপ্ন বাস্তবায়নে আরও উজ্জীবিত হয়ে উঠবে।আমি,আমরা এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঝিনাইদহ জেলা শাখা বিশ্বাস করে, একজন ডা. এস এ মালেকের মৃত্যু নেই। তিনি চিরঞ্জীব হয়ে বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঝিনাইদহ জেলার অভিভাবকের ছায়া হয়ে থাকবেন। আজকের এই দোয়া মাহফিলে আমরা ডা. এস এ মালেকের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। প্রধান আলোচক বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক আবেদ আলীসহ সংগঠনের নেতারা ডা. এস মালেকের জীবনাচরণ নিয়ে আলোচনা করেন এবং তাঁর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের নানা ঘটনা ও দিক তুলে ধরেন।
প্রধান আলোচক অধ্যাপক আবেদ আলী বলেন, ৭৫ পরবর্তী বাংলাদেশে যখন বঙ্গবন্ধু, নৌকা, জয় বাংলা শব্দগুলো নিষিদ্ধ ছিল তখন ডা. এস এ মালেক বিভিন্ন সেমিনার, কর্মসূচি আয়োজন করে বঙ্গবন্ধুর কথা সারাদেশে ছড়িয়ে দিতেন।ডা. এস এ মালেকের রাজনৈতিক জীবন নিয়ে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অধ্যাপক আবেদ আলী বলেন, ডা. এস এ মালেক হলেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রাণশক্তি। তিনি কখনো আদর্শের বাইরে সমঝোতা করতেন না। তিনি সকলকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মেনে চলার আহ্বান জানান।