আমরা দারিদ্র্যের শৃঙ্খল ভেঙে দিতে সক্ষম হয়েছি

প্রকাশিত : নভেম্বর ১১, ২০২২ , ৬:৫৩ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, সারা বিশ্বে এখন আমাদের প্রায় ১২ মিলিয়ন লোক কর্মক্ষেত্রে কাজ করছে। তারা বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করে এবং জাতির জন্য সম্পদ তৈরি করে। তারা আমাদের জন্য বিশ্বের সাথে একটি সংযোগ সেতু খুলে দিয়েছে। তিনি বলেন, আমরা পরিবর্তন আনতে দারিদ্র্যের শৃঙ্খল ভেঙে দিতে সক্ষম হয়েছি এবং জনগণের সুবিধার জন্য প্রচুর বিনিয়োগ তহবিলও প্রদান করছি। বৃহস্পতিবার ঢাকার বসুন্ধরার আইসিসিবি-তে ইন্টারন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্ট (আইসিপিসি) এর ৪৫তম আসরের ‘আইসিপিসি ওয়ার্ল্ড ফাইনালস ঢাকা’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক, আইসিপিসি ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও আইসিপিসি নির্বাহী পরিচালক ড. উইলিয়াম বি. পাউচার, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের (ইউএপি) ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মাদ আলাউদ্দিন, আইসিপিসির উপনির্বাহী পরিচালক ও আইসিপিসি ওয়ার্ল্ড ফাইনালস কনটেস্ট এর পরিচালক ড. মাইকেল জে. ডোনাহু এবং ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য ও আইসিপিসি ওয়ার্ল্ড ফাইনালস ঢাকার পরিচালক অধ্যাপক কামরুল আহসান বক্তৃতা করেন। মন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষুধা নিবারণ করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করি ২০৪১ সালের মধ্যে আমাদের দেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের আইসিটি বিভাগের সাথে আধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তিতে কাজ করা যা আগামী দিনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনের হাতিয়ার হবে।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা দ্রুত সামাজিক ও অর্থনৈতিক অগ্রগতি লাভ করেছি। তিনি বলেন, মহামারীর আগে পর্যন্ত এক দশক ধরে বাংলাদেশের জিডিপি ৬% এ উন্নীত হয়েছিল এবং গত ১৩ বছরে মাথাপিছু আয় ৫০০ মার্কিন ডলার থেকে ২৮০০ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে।