চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত : জানুয়ারি ৪, ২০২৩ , ৮:২৬ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ই-গভর্নেন্স এর ক্ষেত্র সম্প্রসারণ’ শীর্ষক দিনব্যাপী এক কর্মশালা গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ঢাকায় তথ্য ভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মশালায় গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের ১০ম ও তদূর্ধ্ব গ্রেডের কর্মকর্তাগণ এবং ৬৮টি তথ্য অফিসের অফিস প্রধানগণ ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ জসীম উদ্দিনের সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যপ্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. বি এম মইনুল হোসেন। কর্মশালায় বাংলাদেশে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উপাদানসমূহ যেমন রোবোটিক্স, আইওটি এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের প্রয়োগের নানা ক্ষেত্র, চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা হয়। তথ্য ও সম্প্রচার সচিব প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন বাস্তব। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত করতে সকল সরকারি কর্মকর্তাকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সম্পর্কে যথাযথ জ্ঞান রাখতে হবে। মোঃ হুমায়ুন কবীর খোন্দকার আরও বলেন, কোভিড মহামারি চলাকালে অনলাইনে অসংখ্য সভা অনুষ্ঠান, ই-ফাইলে সরকারি কার্যাদি সম্পন্ন করা, শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নেওয়া, ৫০ লাখ পরিবারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তা হিসেবে আড়াই হাজার টাকা সরাসরি পৌঁছে দেওয়া ইত্যাদির মাধ্যমে জনগণ ডিজিটাইজেশনের সুফল পেয়েছে। ভূমি ব্যবস্থাপনায় ই-নামজারির ফলে দুর্নীতি কমেছে। তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে অনেকেই কাজ হারাবে তবে অনেক নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হবে। নতুন কর্মক্ষেত্রের উপযোগী দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হবে।