ভার্চুয়াল পাইপলাইনের নিরাপত্তার উপর বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে

প্রকাশিত : মে ২২, ২০২৩ , ৯:০৫ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম বলেছেন, ভার্চুয়াল পাইপলাইনের নিরাপত্তার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। গ্যাস সিএনজি আকারে পরিবহন করে যে ভার্চুয়াল পাইপলাইন সৃষ্টি হয়েছে তার মাধ্যমে দেশের সংকটপূর্ণ এলাকায় দ্রুত গ্যাস পৌঁছে দেয়া যাবে। ফলে উৎপাদন ব্যবস্থায় নিরবচ্ছিন্নতা বজায় থাকবে। উপদেষ্টা রবিবার ঢাকায় ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে ভোলাস্থ গ্যাস কম্প্রেসডপূর্বক পরিবহন করে তিতাস গ্যাস টি এন্ড ডি কোং লিমিটেডের আওতাধীন গ্যাস ঘাটতিকৃত এলাকায় সরবরাহ করার নিমিত্ত সুন্দরবন গ্যাস কোং লিমিটেড এবং ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন পিএলসি এর মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, ভোলাতে প্রতিদিন প্রায় ২০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন সম্ভব। কিন্তু সঞ্চালন লাইন না থাকায় তা জাতীয় গ্যাস গ্রিডে আনা যাচ্ছে না। ভোলার গ্যাস সিএনজি আকারে সহজেই পরিবহন করে স্বল্প চাপের শিল্পে দেয়া সম্ভব। গ্যাস পরিবহনকালে নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট সকল বিষয়ে বিশেষ গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ভোলা-বরিশাল-খুলনা রুটে গ্যাস নেটওয়ার্ক তৈরি নিয়েও সম্ভাব্যতা যাচাই করা হচ্ছে।
চুক্তিতে সুন্দরবন গ্যাস কোং লিমিটেডের পক্ষে কোম্পানি সচিব শাহ আলম মোল্লা এবং ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন পিএলসি এর পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিয়াদ আলী স্বাক্ষর করেন। জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব ড. মোঃ খায়েরুজ্জামান মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল, পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্র নাথ সরকার, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন পিএলসি-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিয়াদ আলী ও সুন্দরবন গ্যাস কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তোফায়েল আহমেদ বক্তব্য রাখেন ৷